করোনাভাইরাসের জন্য গত দুদিন ধরে বাংলাদেশ কার্যত লকডাউন। আর এই সময়ে বিপদে পড়েছেন দিন মজুর কিংবা খেটে খাওয়া মানুষগুলো। গরিব, অসহায় মানুষগুলোর পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের দুই ফুটবলার বিপলু আহমেদ এবং আরিফুর রহমান।

দুদিন আগে, করোনাভাইরাসের কারণে তৈরি হওয়া দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারকে নিজেদের মাসিক বেতনের অর্ধেক দিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। তাদের মতো সরকারি কোষাগারে দেওয়ার সামর্থ্য না থাকলেও জাতীয় দলের ফুটবলার বিপলু এবং আরিফ নিজেদের সামর্থ্য অনুযায়ী নিজ এলাকার অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তবে অসহায়দের মাঝে খাদ্য দ্রব্য বিতরণের এই উদ্যোগটা প্রথমে নিয়েছেন বিপলু। নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে খাদ্য দ্রব্য বিতরণের একটি ভিডিও পোষ্ট করেন বসুন্ধরা কিংসের এই মিডফিল্ডার। যেখানে দেখা যায়, নিজ শহর সিলেটে একটি সিএনজিতে করে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজসহ কিছু নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য প্যাকেট করে নিয়ে আসেন বিপলু। এরপর সেগুলো কয়েকজন রিকশাচালকের মাঝে বিতরন করেন। 

এভাবে অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে পেরে বিপলু নিজেও দারুন আনন্দিত, "আসলে ভয়ংকর এক সময়ের মুখোমুখি আমরা। আমাদের সবার প্রতিপক্ষ এখন করোনাভাইরাস। এমন বিপদের দিনে কেউ বাড়ি থেকে বের হচ্ছে না। বিশেষ করে যারা দিন আনে দিন খায়, তাদের জন্য বিষয়টা বেশি কষ্টকর। এ জন্য আমি নিজের দায়িত্ব থেকেই এটা করেছি। অসহায় কিছু মানুষের সাহায্য করতে পেরে ভালো লাগছে।''

এ কাজে অন্যদের উৎসাহিত করার জন্যই ভিডিওটি ফেসবুকে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি, "আমি এটা ইচ্ছা করেই ফেসবুক পেজে দিয়েছি। যাতে আমাকে দেখে আরও অনেকে উদ্বুদ্ধ হয় এমন কাজে।"

বিপলুর ফেসবুকে ভিডিও দেওয়ার উদ্দেশ্যটা কাজে লেগেছে। তার জাতীয় দলের সতীর্থ আরিফুর রহমান তাকে দেখে উদ্বুদ্ধ হয়েছেন। নিজ শহর কুমিল্লাতে তিনিও খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন। সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের উইঙ্গার জানিয়েছেন, "আমি বিপলুর ভিডিও দেখেই ভাবলাম এই কাজ তো আমিও করতে পারি। এরপর স্থানীয় কয়েকজন বন্ধু ও ফুটবলারদের সঙ্গে নিয়ে আশপাশের দরিদ্র লোকদের হাতে খাবার তুলে দিয়েছি। একজন বয়স্ক রিকশাওয়ালা তো বলেই দিলেন, সারা দিনে সে একটা টাকাও রোজগার করতে পারেনি। এই খাবারে তার অনেক উপকার হয়েছে।"


শেয়ারঃ


এই বিভাগের আরও লেখা